Ek Romonir Juddho by Ashutosh Mukhopadhyay bengali Book Pdf – এক রমণীর যুদ্ধ – আশুতোষ মুখোপাধ্যায়

Ek Romonir Juddho by Ashutosh Mukhopadhyay bengali Book Pdf  এক রমণীর যুদ্ধ – আশুতোষ মুখোপাধ্যায় Pdf

Book Name – Ek Romonir Juddho (এক রমণীর যুদ্ধ)
Author Name – Ashutosh Mukhopadhyay (আশুতোষ মুখোপাধ্যায়)
Book Type – Bengali Bbook
Book Category – আশুতোষ মুখোপাধ্যায়
File format – PDF
Book Size – 4.78 MB
Book Page – 204

%MINIFYHTMLf7ece8ea4a8defae4ddb389464c3b52f18% %MINIFYHTMLf7ece8ea4a8defae4ddb389464c3b52f19%
Ek Romonir Juddho
%MINIFYHTMLf7ece8ea4a8defae4ddb389464c3b52f20% %MINIFYHTMLf7ece8ea4a8defae4ddb389464c3b52f21%

Download

Download

এক রমণীর যুদ্ধ উপন্যাসটির কেন্দ্রে অবস্থান করছে শ্যামাঙ্গী এক নারী, যার নাকে ঝকমক করছে একটি হীরের ফুল। এই একবিন্দু হীরেই যেন নারীটির লাবণ্যকে বাড়িয়ে দিয়েছে বহুগুনে। লেখকের সাথে সেই নারীর দেখা বারাণসীতে, সেখানেই তিনি আবিষ্কার করেন মধ্যবয়সী সেই নারীর জীবনের উত্থান-পতনের গল্প।

তিন বোনের মধ্যে অবন্তীই ছিল সবচেয়ে কালো। কিন্তু গায়ের রঙ কালো হলে কি হবে, মিষ্টি চেহারার এই মেয়েটি আদতে কিন্তু ছিল তার দিদিদের চেয়েও বেশি সুন্দর। তার উপর ছিল নাচ আর গানের জগতে তার সদর্প বিচরন।

অবন্তীর জীবনের প্রথম প্রেম ছিল বরুন মেহরা, অবন্তীদের প্রতিবেশী। অবন্তীর মাঝে সে যেন খুঁজে পেত পৃথিবীর সমস্ত সৌন্দর্য। সতেজ দুটি প্রাণ ভালবেসেছিল পরষ্পরকে। কিন্তু টাকার নেশা বরুনকে টেনে নিয়ে গেল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। পিছনে পড়ে রইল অবন্তী, স্মৃতিতে নিয়ে বরুনের ভালবাসার এক টুকরো স্পর্শ।

অবন্তী কি বোকা ছিল? নাইলে শত উপেক্ষার পরেও কেন তার অপেক্ষায় ভাটা পড়েনি, কেন পাঁচ পাঁচটি বছর কাটিয়ে দিল নিরুদ্দেশ বরুণের কথা ভেবে? তারপর হঠাত যেন সম্ভিত ফিরলো, বরুন আর আসবে না; অপেক্ষার পালাও শেষ হল তার। তখন জীবনে এল সমর সিংহ। কিন্তু সমরের সাথেও তার পথচলার স্থায়ীত্ব খুব বেশি প্রলম্বিত হয়নি। সমর ছিল তার জীবনের এক কালবৈশাখী ঝড়ের মত, যে তার পরিবার পরিজনকে খড় কুটোর মত উড়িয়ে নিয়ে গিয়েছিল, তারপর নিজেও চলে গেল অবন্তীকে নিঃসঙ্গতার আস্তাকুড়ে ছুড়ে ফেলে। সেই আস্তাকুড় থেকে অবন্তীকে আবার স্বাভাবিক জীবনে ফিরিয়ে নিতে সুদীর্ঘ সাত বছর পর ফিরে এল বরুন মেহরা, অবন্তীর প্রথম প্রেম।

তারপর??? বরুন মেহরার প্রত্যাবর্তন কি অবন্তীকে দিয়েছিল একটি সুন্দর জীবনের প্রতিশ্রুতি, নাকি আবার তাকে নামতে হয়েছে জীবনযুদ্ধে? দশাশই চেহারার রজার বারডোর হিংস্র কবল থেকে কিভাবে মুক্তি পেল সে? আর কি করেই বা ‘নতুন মা’ রূপে অধিষ্ঠিত হল প্রায় সমবয়সী দুই পুত্রের? অবন্তীর জীবনে দাম্ভিক সূর্য পান্ডের আগমনটাও তো ছিল আরেকটা যুদ্ধেরই নামান্তর। সেই যুদ্ধই কি ছিল অবন্তীর জীবনের অন্তিম যুদ্ধ? নাকি আরো বাকি আছে??? এই সব প্রশ্নের উত্তর জানতে চাইলে পড়ে ফেলুন আশুতোষ মুখোপাধ্যায়ের ‘এক রমণীর যুদ্ধ’।